রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন

কাণ্ডারি! হাল ধর শক্ত হাতে

কাণ্ডারি! হাল ধর শক্ত হাতে

কমল সেন গুপ্ত।।
এক কালে মা সন্ধ্যাবেলা প্রদীপ জ্বালিয়ে সদর দরজার দিকে তাকিয়ে থাকত, খোকাতো এখনো ফিরলো না।মাঠের চারদিকে অন্ধকার নামলে খোকার বুক ছ্যাঁত করে উঠত।কত কাল মাকে দেখিনা।ঘরে ফিরলে বকা শুনতে হবে নিশ্চিত।দুরু দুরু বুকে সন্ধ্যা বেলা দুরন্ত খোকা ঘরে ফেরে। মায়ের টানে।ঘরের টানে। যেন প্রদীপের আলো খোকাকে ঘরে নিয়ে আসে।মনে পড়ে কবি গুরুর গানের সেই লাইন, তুই দিন ফুরালে সন্ধ্যাকালে কী দীপ জ্বালিস ঘরে, মরি হায়, হায় রে তখন খেলাধুলা সকল ফেলে, ও মা, তোমার কোলে ছুটে আসি।শৈশবে সারা বিকেল ধুলা বালি অঙ্গে মেখে গোধূলি লগ্নে ঘরে ফেরা ছিল এক মায়াবী টান।আহা সেই শৈশব।সেই আনন্দময় শৈশব।
গত আড়াই মাস যাবত আমরা এক রকম ঘরেই অবরুদ্ধ।কোনদিন বিকেলে বাহিরে বের হলেও সন্ধ্যার মধ্যেই ঘরে ফিরতে হত।এ অভ্যাস এখন রপ্ত হয়েছে।গত মার্চ মাসের প্রথম দিকেও অভ্যাস ছিল অন্য রকম। অফিসের পরেই কাজ শুরু। প্রেসক্লাব,পত্রিকা অফিস, সাংস্কৃতিক অঙ্গন আরও কত কাজ। জন্মেছিতো সমাজকে কিছু দেবার জন্য।বাসাতো শুধু ঘুমাবার জন্য।সেই দিন আর নেই। সন্ধ্যায় এখন আমার ঠিকানা ঘর আর কম্পিউটার।আজ ফিরতে একটু সন্ধ্যা হলে বুকটা দূর দূর করে উঠল। রাতের বরিশালতো আমার না।মনে পড়লো বরিশাল এখনতো ‘রেড জোনে’।হিংস্র ফণা তুলে ধেয়ে আসছে সেই বিষাক্ত করোনা ভাইরাস। লিক লিক করছে জিভ।ঐ হিংস্র সাপের দংশনে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।আজ বরিশাল জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাড়িয়েছে ৫৬৬। ৪৪৭ জন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনে আর বাকী ১১৯ বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায়। বাকি পাঁচ জেলা, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর ও ঝালকাঠি মিলিয়ে বিভাগে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত ৯৩২।সারা দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৭৬৯।করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত মৃত্যু ৮৮৮ জনের।কি ভয়াবহ চিত্র।আতংকিত মন।সদর রোড আর আমায় টানে না।ঘর টানে। তবে ঘরের মায়া নয় সেই আচেনা জীবের ভয়।পিদিমের আলো নয়। করোনার হিংস্র ফণা দেখে। এবার বরিশাল রেড জোন। আবার লক ডাউন।আবার অবরুদ্ধ জীবন।দুলিতেছে তরি, ফুলিতেছে জল, ছিঁড়িয়াছে পাল, কে ধরিবে হাল, আছে কার হিম্মৎ? কাণ্ডারি হাল ধর শক্ত হাতে, আর চোর-পুলিশ খেলা নয়, নয় পুলিশের মৃত্যু, নয় তথ্য লুকিয়ে অন্য ওয়ার্ডে ভর্তি। পরিনাম ডাক্তার ও নার্সের মৃত্য। চাই কঠোর আইন।হে কাণ্ডারি এ তুফান ভারী, দিতে হবে পাড়ি, নিতে হবে তরী পার।শক্ত হাতে ধর হাল। আমরা তো তোমার দিকেই তাকিয়ে আছি। আবার যেতে ইচ্ছে করে প্রেসক্লাব, সদর রোড, অশ্বিনী কুমার হল হয়ে মানুষের মিছিলে। কিন্তু কবে………? দীর্ঘপথ বেয়ে বেয়ে আমরা বড় ক্লান্ত। পথের ক্লান্তি ভুলে স্নেহ ভরা কোলে তব মাগো, বলো কবে শীতল হবো | কত দূর আর কত দূর বল মা?

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © বরিশাল টিভি ২০১৭
Design By MrHostBD